• গুজবে কান না দেওয়ার আহবান জানালেন নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার


    স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জ জেলার সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ে এবং গুজবে কান না দেওয়ার জন্য একটি প্রেস ব্রিফিং করেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ। রবিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের চাষাড়াস্থিত কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে সাংবাদিকদের সাথে এ প্রেস ব্রিফিং করেন।

    প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার বলেন, নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদানের পর থেকে আমি মাদকের বিররেু যুদ্ধ ঘোষণা করেছি। আমরা মাদকের প্রতি জিরো টলারেন্স। বর্তমান সময়ে ছেলে-মেয়ে ধরা সন্দেহে কিংবা গলাকাটা সন্দেহে গণপিটুনি দিয়ে নিরীহ লোকজনদেরকে মারা হচ্ছে, যা অনাকাঙ্খিত। সন্দেহবশত: কাউকে পিটিয়ে মারা যাবে না। তাকে না মেরে আটক করুন। নিকটস্থ থানা বা পুলিশ বা আইন প্রয়োগ সংস্থার হাতে তুলে দিন। পদ্মা সেতু নির্মানে মাথা লাগবে একটি কুচক্রী মহল এমন গুজব ছড়ানোর পর দেশের বিভিন্নস্থানে কয়েকজন মর্মান্তিকভাবে প্রাণ হারিয়েছে। গুজবে কেউ কান দিবেন না।

    তিনি বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনীতে সিরাজ (৩০) নামে একজন নিহত ও শারমিন (২৫) নামে একজন আহত হয়। এই ব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় দুইটি মমলা হয়েছে এবং ১৪ জনকে ইতিমধ্যে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। অভিযান অব্যাহত আছে।
    এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম ও আবদুল্লাহ আল মামুন, নারায়ণগঞ্জ সদর থানার ওসি কামরুল ইসলাম, ফতুল্লা থানার ওসি আসলাম হোসেন প্রমুখ।

    তিনি আরো বলেন, ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনি একটি ফৌজদারী অপরাধ। আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। গণপিটুনীর ঘটনায় যারা জড়িত তদন্ত করে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে। দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরী করা রাষ্ট্রবিরোধী কাজের শামিল। সুতরাং কেউ অপরাধ করে পার পাবেনা। নারায়ণগঞ্জ পুলিশের পক্ষ থেকে গুজবে কান না দেওয়ার জন্য নারায়ণগঞ্জবাসীকে অনুরোধ করা হলো। আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য একটি চক্র এ ধরণের গুজব ছড়াচ্ছে। নারায়ণগঞ্জের সকল থানার ওসিদেরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে মাইকিং করার জন্য (ইতিমধ্যে মাইকিংয়ের কার্যক্রম চলছে)। এলাকার জনপ্রতিনিধি, চেয়ারম্যান, কমিশনার, কাউন্সিলর, মেম্বারসহ স্কুল কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষকদের সাথে এ বিষয়ে আলোচনা করা নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

    পুলিশ সুপার বলেন, আপনারা জানেন নারায়ণগঞ্জ শহরকে শান্তিময় ও সুন্দর শহর গড়ে তোলার লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ কাজ করছে। ইতিমধ্যে মীর জুমলা সড়ক সাধারণ মানুষের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। আগে অবৈধ দখলদাররা এই রাস্তা দখল করে রাখত। আমরা চাষাড়ার আশেপাশে ও বঙ্গবন্ধু রোডে হকারমুক্ত ফুটপাত উপহার দিয়েছি। সাধারণ মানুষ তাদের ছেলে-মেয়ে নিয়ে চলাফেরা করতে পারছে। আমরা ভূমিদস্যু, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, মাদক নিয়ে কাজ করছি এবং এই ধারা অব্যাহত থাকবে।

    তিনি বলেন, আগামী ২৫ জুলাই রূপগঞ্জ থানার কাঞ্চন পৌরসভা নির্বাচন। ওই নির্বাচন পূর্বের নির্বাচনের ন্যায় অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। নির্বাচনে কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা করতে দেওয়া হবে না। নির্বাচনে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে।

    Spread the love
    Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial