• গাজীপুরে বসতঘরে আগুনে দগ্ধ তিনজনই মারা গেলেন


    গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুর মহানগরীর সালনা কাথোরা মন্ডলবাড়ি এলাকায় শনিবার ভোরে অগ্নিকান্ডে দগ্ধ গৃহকর্ত্রী আকলিমা বেগমের (৫০) মারা যাওয়ার দুইদিন পর সোমবার দুপুরে তার স্বামী ইয়াকুব আলী মন্ডল (৬৫) ও আকলিমার বাবা নুর মোহাম্মদ চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে মারা গেছেন।

    ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর মো: বাচ্চু মিয়া জানান, আহতদের মধ্যে তিনজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। এখানে ভর্তিকৃত ইয়াকুব আলীর শরীরের শতভাগ, স্ত্রী আকলিমার শরীরের ৯৫ শতাংশ এবং নুর মেহাম্মদের শরীরের ২৫ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। এখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে আকলিমা বেগম এবং সোমবার দুপুরে ইয়াকুব আলী মন্ডল ও নুর মোহাম্মদ মারা গেছেন।

    পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, একতলা ভবনের এক ইউনিটের একটি কক্ষে ইয়াকুব ও তার স্ত্রী এবং পাশের কক্ষে স্বপন ও তার নানা ঘুমিয়ে ছিলেন। শনিবার ভোর ৪টার দিকে বিকট শব্দে কক্ষের দরজা জানালা ভেঙ্গে যায় এবং অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। পরে এলাকাবাসী গিয়ে আগুন নিভিয়ে কক্ষ থেকে দ্বগ্ধ অবস্থায় ৩ জনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি এবং সামান্য আহত স্বপনকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়। আগুনে ঘরের খাট, বিছানা-পত্র, কাপড়-চোপড়সহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে গেছে।

    গাজীপুরের জয়দেবপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ জাকারিয়া জানান, যে বসত ঘরে আগুনের ঘটনা ঘটেছে সেই বাড়ির রান্না ঘরের পেছনে তিতাস গ্যাসের সরবরাহের লাইনে ছিদ্র ছিল। ওই ছিদ্র পথে তিতাস গ্যাস বসতঘরের কক্ষে জমেছিল। ভোররাতে কখনো সিগারেট বা দিয়াশলাইয়ের কাঠিতে আগুন জ্বালানোর ফলে অথবা বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনা তদন্তে গাজীপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৫ সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

    Spread the love
    Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial