• গাজীপুরে ছয় প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী


    গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুরে ছয়টি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে মিনিটে গণভবন থেকে টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে এসব প্রকল্প উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা।

    প্রকল্প গুলো হচ্ছে-কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটি রেলস্টেশন, গাজীপুর-আজমতপুর-ইটাখোলা সড়কে শীতলক্ষ্যা নদীর উপর মোক্তারপুর-চরসিন্দুর সেতু, জেলা সরকারী গণগ্রন্থাগার ভবন, শতভাগ বিদ্যুতায়িত উপজেলা কালীগঞ্জ ও কালিয়াকৈর এবং সামিট এইচ এ্যালাইয়ান্স পাওয়ার লিমিটেড কড্ডা গাজীপুর ১৪৯ মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র।

    এ উপলক্ষে গাজীপুর জেলা প্রশাসকের ভাওয়াল সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন গাজীপুরের জেলা প্রশাসন। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব প্রকল্প আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন ঘোষণার সময় সম্মেলন কক্ষের এক পাশে উদ্বোধনী ফলকগুলো একে একে উন্মোচন করা হয়। পরে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড.দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীরের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালী জেলা শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে বাংলাদেশ হাইকেট পার্ক কর্তৃপক্ষের অতিরিক্ত সচিব আজিজুল ইসলাম, গাজীপুরের পুলিশ সুপার সামসুন্নাহার, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (প্রশাসন) রফিকুল ইসলাম, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব (ভূমি) মীর আলমগীর আলম, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব (উন্নয়ন) মো: আলতাফ হোসেন, গাজীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি খায়রুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রাহিম সরকার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সঞ্জীব কুমার দেবনাথ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ মশিউর রহমান, গাজীপুর সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ডি কে এম নাহীন রেজা, গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী যুবরাজ চন্দ্র পাল সহ প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    এদিকে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি রেলস্টেশন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি রেলস্টেশনে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম মোজাম্মেল হক, কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন মজুমদারসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন দলের নেতা-কর্মী, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও রেলস্টেশনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

    স্থানীয়রা জানায়, রেলস্টেশনটি চালুর মাধ্যমে এলাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের পাশাপাশি শিল্পায়ন ও পর্যটন শিল্পেরও বিকাশ ঘটবে।

    রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, ৩৪ কোটি ৮৪ লাখ ২৮ হাজার ৭৯৪ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয়েছে অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি রেলষ্টেশন। অতি চমৎকার এ রেল রেলষ্টেশনটি আকারে ছোট হলেও এর মূল ডিজাইন রাজধানীর কমলাপুর রেলষ্টেশনের আদলে করা হয়েছে।

    Spread the love