• ব্রেকিংনিউজ: তাপদাহে আবারো গাজীপুরে পোশাক কারখানার চার শতাধিক শ্রমিক অসুস্থ্য     ::     মুক্তিযুদ্ধে কবি নজরুলের গান ও কবিতা ছিল প্রেরণার উৎস : ধর্মমন্ত্রী     ::     সরকারের দেয়া জমির দখল না পাওয়ায় কুড়িগ্রামে ১৪৯ রিফুজি পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন     ::     আসন্ন ঈদে বিআরটিসি’র নয়শত বাস প্রস্তুত     ::     জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১১৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সরকারি কর্মসূচি     ::    
    Safari park GB Pic

    বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের বনপ্রহরীদের সঙ্গে বহিরাগতদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া


    image_print

    স্টাফ রিপোর্টার : গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে অবৈধভাবে দোকান বসানো নিয়ে শনিবার বহিরাগতদের সঙ্গে বন প্রহরীদের মধ্যে কয়েক দফা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে বন প্রহরীরা ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।

    সাফারি পার্কের বন কর্মকর্তা মো. মঞ্জুরুল আলম জানান, সাফারি পার্কের বাইরে মূল ফটকের সামনে পার্কিং জোনে শ্রীপুরের মাওনা ইউপি’র ৫নং ওয়ার্ডের সাবেক যুবলীগ সভাপতি সিরাজুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল বহিরাগত অস্থায়ী দোকানপাট স্থাপন করেছে। শনিবার সকালে মাননীয় মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন সাফারি পার্ক পরিদর্শণে যাওয়ার আগে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বনপ্রহরীরা বহিরাগতদের দোকানপাট সরিয়ে নিতে বলেন। এসময় বহিরাগত স্থানীয় সিরাজুল ইসলাম, বাবুল এবং তাদের সহযোগীরা বন প্রহরীদের সঙ্গে কথাকাটাকাটি শুরু করে। এক পর্যায়ে বন প্রহরীদের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে ও টেনে হিঁচড়ে একজনের ইউনিফর্মের বোতাম ছিঁড়ে ফেলে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

    পার্কের বন প্রহরী হাসান মিয়া সাংবাদিকদের জানান, গেটের সামনে স্থানীয় বহিরাগতরা গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গায় অস্থায়ী দোকানপাট স্থাপন করে। গত কয়েদিন যাবত তাদের দোকানপাট সরিয়ে নিতে বলা হয়। গত দুদিন যাবত অনুনয় বিনয় করলে কিছু দোকানপাট সরিয়ে নেয়। শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আরও কিছু দোকানপাট উচ্ছেদ করতে গেলে বাবুল এবং তাদের সহযোগীরা বাধা দেয়। পরে ঘটনাটি বহিরাগতরা সিরাজুল ইসলামকে জানালে দল-বল ও লাঠি-সোটা নিয়ে তারা পার্ক এলাকায় অবস্থান নেয়। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তিনজন বন কর্মকর্তাসহ অস্ত্রধারী ৬ সদস্যের বন প্রহরী তাদের দ্বিতীয় দফায় উচ্ছেদ করার চেষ্টা করে। এসময় সিরাজুল ইসলাম বাবুল তাদের নারী সহযোগীদের সাথে নিয়ে বন প্রহরীদের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে ও টেনে হিঁচড়ে একজনের ইউনিফর্ম ছিঁড়ে ফেলে। পরিস্থিতি সামাল দিতে বন প্রহরীরা এক রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে।

    অভিযুক্ত সিরাজুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, পার্কের ইজারাদারদের কাছ থেকে তারা গাড়ী পার্কিংয়ের জায়গা সাব-ইজারা নিয়েছেন। এজন্য বন প্রহরীরা তাদের কাছে প্রতিদিন ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে।

    এ ব্যাপারে শ্রীপুর মডেল থানার এস আই সৈয়দ আজিজুল হক বলেন, গাড়ী পার্কিংয়ের জায়গা থেকে দোকানপাট সরাতে গিয়ে বহিরাগতদের সঙ্গে বন প্রহরীদের এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কোনো মামলা রুজু হয়নি। সকাল ১০টার দিকে বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন সরকারী কাজে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক পরিদর্শনে আসেন।