• ব্রেকিংনিউজ: তাপদাহে আবারো গাজীপুরে পোশাক কারখানার চার শতাধিক শ্রমিক অসুস্থ্য     ::     মুক্তিযুদ্ধে কবি নজরুলের গান ও কবিতা ছিল প্রেরণার উৎস : ধর্মমন্ত্রী     ::     সরকারের দেয়া জমির দখল না পাওয়ায় কুড়িগ্রামে ১৪৯ রিফুজি পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন     ::     আসন্ন ঈদে বিআরটিসি’র নয়শত বাস প্রস্তুত     ::     জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১১৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সরকারি কর্মসূচি     ::    
    03_06_2016 Scout

    দুর্যোগে যারা কাজ করবে ও সার্টিফিকেট থাকবে, তাদেরকে চাকুরী ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেয়া হবে : দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী


    image_print

    স্টাফ রিপোর্টার : দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেছেন, বাংলাদেশ একটি দুর্যোগ প্রবণ দেশ। দুর্যোগ প্রবণ দেশ হলেও দুর্যোগ মোকাবেলায় বাংলাদেশ এখন বিশ্বের কাছে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। আমরা দুর্যোগ মোকাবেলার ক্ষমতা অর্জন করেছি। আমাদের প্রস্তুতির কারণে বিভিন্ন সময়ের দুর্যোগে জানমালের ক্ষয়ক্ষতি অনেক কম হচ্ছে।  প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ভলান্টিয়াররা (সেচ্ছাসেবক) হচ্ছে উদ্ধার কাজের প্রথম সারির সৈনিক।  তাদের জন্যই গত কয়েকদিন আগে বয়ে যাওয়া বড় ধরনের দূর্যোগ ‘রোয়ানু’কে মোকাবেলা করা সহজতর হয়েছে। যদিও দেশের অনেক মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেচ্ছাসেবকদের কারণেই ওই এলাকার লোকজনকে আগেই নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া সম্ভব হয়েছিল। আমাদের সামনে ভুমিকম্পের মতো আরেকটি বড় দুর্যোগ রয়েছে, যা মোকাবেলা করার জন্য আমাদের সবাইকে প্রস্তুত থাকতে হবে।

    মন্ত্রী আরো বলেন, যারা দুর্যোগে কাজ করবে এবং সার্টিফিকেট থাকবে, তাদের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকুরী দেয়া হবে। এছাড়া মুক্তিযোদ্ধা ও অন্যান্য কোটার মতো যারা জীবন বাজি রেখে দুর্যোগ মোকাবেলায় কাজ করবে তাদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে কোটা ভিত্তিতে চাকুরীর ব্যবস্থা করা চেষ্টা করা হবে।

    মন্ত্রী শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের মৌচাকস্থিত জাতীয় স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে স্কাউটদের প্রথম জাতীয় দুর্যোগ সাড়াদান প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে এসব কথা বলেন। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং বাংলাদেশ স্কাউটস এর জাতীয় কশিনার (সমাজ উন্নয়ন) মোঃ শাহ কামালের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রিয়াজ আহমেদ, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল আলী আহমেদ খান পিএএসসি, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোরের মহাপরিচালক ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল এস এম ফেরদৌস, উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা জাইকা ও ইউএনডিপি’র প্রতিনিধি কচিও কিতা মোরা, বাংলাদেশ স্বাউটস এর উপ-কমিশনার মোঃ মহসীনসহ বাংলাদেশ স্বাউটস এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

    আয়োজকরা জানান, তিন দিন ব্যাপী এ প্রশিক্ষণে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ৩৩০ জন স্কাউট অংশগ্রহন করছেন। অংশগ্রহনকারী স্কাউটদের ভূমিকম্প, ঘূর্ণিঝড়, অগ্নিকান্ড, বন্যা ও পাহাড় ধ্বসসহ নানা প্রকার প্রাকৃতিক দুর্যোগে সতর্কতা, উদ্ধার তৎপরতা ও ত্রাণ তৎপরতা বিষয়ে মৌলিক প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।