• কাপাসিয়ার যুবলীগ নেতা জালাল হত্যা মামলায় পাঁচ জনের ফাঁসি বহাল, যাবজ্জীবন পাঁচ জনের


    গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুরের কাপাসিয়ায় আলোচিত উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জালাল উদ্দিন হত্যা মামলার আপীলের (ডেথ রেফারেন্স) রায়ে উপজেলা যুবদল ও ছাত্রদলের ১১ আসামীর মধ্যে ৫ জনের ফাঁসিতে মৃত্যুদন্ডাদেশ বহাল রেখে ৫ আসামীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও একজনকে বেকসুর খালাস দিয়েছে হাইকোর্টের আপীল বেঞ্চ আদালত। বিচারপতি শহিদুল করিম ও আক্তারুজ্জামান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহষ্পতিবার এ রায় ঘোষণা করেন।

    ফাঁসির দন্ডাদেশ প্রাপ্তরা হলেন-কাপাসিয়া উপজেলার বাটপাড়া এলাকার সাবেক উপজেলা ছাত্রদল নেতা ফারুক হোসেন, কাপাসিয়া উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি পাবুর এলাকার আব্দুল আলীম, যুবদল কর্মী জজ মিয়া ও আল আমিন এবং নলগাঁও কেওনপাড়া এলাকার ছাত্রদল কর্মী বেলায়েত হোসেন বেল্টু।

    যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হলেন-কাপাসিয়া উপজেলার খোদাদিয়া এলাকার উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি হালিম ফকির, কাপাসিয়া কলেজ শাখা ছাত্রদলের সাবেক আহবায়ক জুয়েল ও যুবদলকর্মী মাহবুবুর রহমান রিপন এবং পাবুর এলাকার ছাত্রদল কর্মী ফরহাদ হোসেন ও সাংবাদিক আতাউর রহমান। মামলার অপর আসামী যুবদল কর্মী জয়নাল আবেদীনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

    জানা গেছে, ২০০৩ সালের ১৭ আগস্ট কাপাসিয়া উপজেলার বলখেলা বাজার এলাকায় বাড়ির পাশে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জালাল উদ্দিন সরকারকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে খুন করে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় কাপাসিয়া উপজেলা যুবদলের ও ছাত্রদলের সভাপতিসহ কয়েকজনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন নিহতের বড় ভাই মিলন সরকার।

    মামলার দীর্ঘ শুনানী ও ২২ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর গাজীপুরের অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত-১ এর বিচারক ফজলে এলাহী ভূঁইয়া ওই মামলার রায় প্রদান করেন। রায়ে ১১জনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডাদেশ দেন বিচারক। আসামীরা এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপীল করেন। শুনানী শেষে হাইকোর্টের আপীল বেঞ্চের বিচারক শহীদুল করিম ও আক্তারুজ্জামান বৃহষ্পতিবার এ মামলার ডেথ রেফারেন্সের রায় প্রদান করেন। আদালত ভার্চুয়ালী এ রায়ে উল্লেখিত ৫জনের ফাঁসিতে মৃত্যুর দন্ডাদেশ বহাল রাখেন। রায়ে ওই মামলার অপর ৫ আসামীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও একজনকে খালাস দেওয়া হয়। দন্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে জজ মিয়া, আল আমিন, জুয়েল, হালিম ফকির ও মাহবুবুর রহমান রিপন পলাতক রয়েছে।

    রায় ঘোষণাকালে নিহতের মেয়ে শাহরিয়ার জালাল হৃদি ও চাচাতো ভাই নয়ন সরকারসহ পরিবারের সদস্যরা ও আইনজীবীগণ আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

     

    Spread the love