• ওয়াশিং মেশিনে এক যুগের ওয়ারেন্টির ঘোষণা ওয়ালটনের


    স্টাফ রিপোর্টার, বিডিওয়ার্ল্ড টোয়েন্টিফোর ডটকম : নিজস্ব কারখানায় বিশ্বমানের ওয়াশিং মেশিন উৎপাদন ও বাজারজাত করছে ওয়ালটন। এজন্য ওয়ালটনের রয়েছে শক্তিশালী আরএন্ডডি (গবেষণা ও উন্নয়ণ) বিভাগ এবং অত্যাধুনিক টেস্টিং ল্যাব। ফলে আধুনিক ব্যস্ত সময়ে গৃহের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এ যন্ত্রটির উচ্চমানের বিষয়ে শতভাগ নিশ্চিত ওয়ালটন। এরই প্রেক্ষিতে শ্রেষ্ঠত্বের আত্মবিশ্বাসে ওয়াশিং মেশিনে সর্বোচ্চ ১২ বছরের ওয়ারেন্টির ঘোষণা দিলো দেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন। মডেলভেদে থাকছে সর্বনিম্ন ৫ বছরের ওয়ারেন্টি।

    এ উপলক্ষ্যে সম্প্রতি রাজধানীর ওয়ালটন করপোরেট অফিসে এক ডিক্লারেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইভা রিজওয়ানা নিলু ও এমদাদুল হক সরকার, নির্বাহী পরিচালক এস এম জাহিদ হাসান, মো. হুমায়ূন কবীর, মো. রায়হান ও ড. সাখাওয়াত হোসেন, হোম অ্যাপ্লায়েন্স-এর সিইও প্রকৌশলী আল ইমরান।

    নাহিয়ান তাসনিম জয়ী’র উপস্থাপনায় এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর অগাস্টিন সুজন, সিনিয়র ডেপুটি ডিরেক্টর প্রকৌশলী চিরঞ্জিত পাল, ডেপুটি ডিরেক্টর জীবন আহমেদ প্রমুখ।

    অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এখন থেকে ওয়ালটনের ইনভার্টার সিরিজের টপ ও ফ্রন্ট লোডিং অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিনের প্রধান যন্ত্রাংশে (মোটর) সর্বোচ্চ ১২ বছরের ওয়ারেন্টি পাবেন গ্রাহক। আর সেমি অটোমেটিক ওয়াশিং মেশিনের প্রধান যন্ত্রাংশে (মোটর) থাকছে ৫ বছরের ওয়ারেন্টি।

    আল ইমরান বলেন, বাংলাদেশে নিজস্ব কারখানায় বিশ্বমানের পণ্য তৈরি ও সাশ্রয়ী দামে সরবরাহ করায় ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন। দেশের বাজারে প্রতিনিয়ত বাড়ছে ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন বিক্রি। একই সময়ে বেড়েছে রপ্তানিও। সম্প্রতি প্রতিবেশি ভারতে ওয়াশিং মেশিন রপ্তানি শুরু করেছে ওয়ালটন। পাশাপাশি নেপাল, ইয়েমেন, পূর্ব তিমুর ইত্যাদি দেশে ওয়াশিং মেশিন রপ্তানি হচ্ছে।

    ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনের আরএন্ডডি প্রধান মনিরুজ্জামান কার্জন জানান, ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন তৈরি হচ্ছে দেশভেদে ক্রেতাদের পছন্দ, প্রয়োজনীয়তা, ক্রয় সক্ষমতা, আবহাওয়া ইত্যাদির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে। আরএন্ডডি ও টেস্টিং ল্যাবে কাজ করছেন দেশের একঝাঁক মেধাবী প্রকৌশলী। যারা ওয়াশিং মেশিনের ডিজাইন, নতুন নতুন প্রযুক্তি ও ফিচার এবং গুণগত মান নিয়ে নিয়মিত গবেষণা করছেন। ফলে গ্রাহকরা বাজেট অনুযায়ী সেরা মানের টেকসই পণ্য পাচ্ছেন।

    কর্তৃপক্ষ জানায়, বর্তমানে বাজারে রয়েছে ১৪ মডেলের সেমি অটোমেটিক এবং অটোমেটিক টপ ও ফ্রন্ট লোডিং ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন। ৬ থেকে ১২.৫ কেজি পর্যন্ত ধারণক্ষমতার এসব ওয়াশিং মেশিনের মূল্য মাত্র ৬,৯০০ টাকা থেকে ৪৮,০০০ টাকার মধ্যে।

    ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিন অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন। বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী। এতে অত্যাধুনিক সব ফিচার রয়েছে। নগদ মূল্যের পাশাপাশি জিরো ইন্টারেস্টে ইএমআই (ইকুয়্যাল মান্থলি ইন্সটলমেন্ট) এবং ৯৯৯ টাকা ডাউনপেমেন্টে কিস্তি সুবিধায় কেনার সুযোগ আছে। ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনে গ্রাহকরা পাচ্ছেন ফ্রি ইন্সটলমেন্ট। সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে সারা দেশে রয়েছে ৭৬টি সার্ভিস সেন্টার।

    Spread the love