• ব্রেকিংনিউজ: ইসির অধিনেই নির্বাচন, শেখ হাসিনা সরকার সহায়ক : ওবায়দুল কাদের     ::     বাঙালি জাতির প্রতিটি মহৎ, শুভ ও কল্যাণকর অর্জনে আওয়ামী লীগের ভূমিকা রয়েছে : শেখ হাসিনা     ::     ঈদে ওয়ালটন ফ্রিজ, টিভি, হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস বিক্রির ধুম     ::     জিসিসি মেয়রের চেয়ারে অধ্যাপক এম এ মান্নান     ::    
    08_01_2017-MB-Paribahan

    অবশেষে মৌলভীবাজারে পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাহার


    image_print

    মো: জহিরুল ইসলাম, মৌলভীবাজার : মৌলভীবাজারে শ্রীমঙ্গলে অবশেষে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় শ্রীমঙ্গলের বিটিআরআই গেস্ট হাউস অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে ধর্মঘট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে। বৈঠকে বিজিবির রিজিওন্যাল কমান্ডার ব্রি. জে. আবুল হাসনাত, মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, মৌলভীবাজার পৌর মেয়র ফজলুল রহমান, সিলেট বিভাগীয় পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সেলিম আহমদ ফলিক সহ প্রশাসন ও বিজিবির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে পরিবহন শ্রমিকদের দাবি গুলো বাস্তবায়নের আশ্বাস দেওয়া হয়।

    এর আগে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিনে শ্রীমঙ্গল উপজেলায় অনড় অবস্থানে থাকেন পরিবহন শ্রমিকরা। শনিবার ভোর ৬টা থেকে শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা চত্ত¡রে একে একে পরিবহন শ্রমিকরা জমা হতে থাকে। শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ছাড়াও বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে মোড়ে পরিবহন শ্রমিকরা অবস্থান নিতে দেখা যায়। এতে করে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। আর এই যানবাহন বন্ধ হওয়ার কারণে কর্মজীবি মানুষ ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা চমর ভোগান্তির স্বীকারে পড়ে, ভুগান্তিতে পড়েন সাধারণ মানুষ। এদিকে অর্নাস ২য় বর্ষের পরীক্ষা থাকায় যানবাহন না পেয়ে অনেক শিক্ষার্থীরা শ্রীমঙ্গল থেকে অনেক কষ্ট করে মৌলভীবাজার গিয়ে পরীক্ষা দিতে হয়েছে। অনেকে শ্রীমঙ্গল থেকে প্যাডেল চালিত রিকশায় করে মৌলভীবাজার গিয়েছে। গুনতে হয়েছে বাড়তি ২০০-৩০০ টাকা।

    এদিকে দুপুর ২টায় বিভিন্ন রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দরা মিলে শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা চত্ত্বরে এক পথসভার ডাক দেয়। পথ সভায় শ্রীমঙ্গল পৌর মেয়র মহসিন মিয়ার সভাপত্তিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এমপি। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান রণধীর কুমার দেব, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা এম এ মান্নান, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অর্ধেন্দু কুমার দেব, ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শেখ লুৎফুর রহমান সহ প্রমুখ।

    এসময় স্থানীয় সংসদ সদস্য উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এমপি বলেছেন, যারা এই ঘটনার সাথে জড়িত তাদের আইনের আওয়াতায় আনতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রালয় থেকে বিচারের জন্য বিজিবিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আপনাদের ক্ষতিপূরণ দিতে বিজিবি আশ্বাস দিয়েছেন। যারা অপরাধ করেছে তাদের অনেকে ক্লোজড করা হয়েছে। এসময় ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য আহবান করেন।

    এদিককে ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শেখ লুৎফুর রহমান বলেন, বিজিবি’র উচ্চ পর্যায়ের অফিসার আমাদের ব্যবসায়ীদের ক্ষতিপূরণের দাবী মেনে নিয়েছেন, আর যে সকল বিজিবি সদস্যরা আমাদের নিরাপরাধ ব্যবসায়ীদের দোকানে হামলা ও গুলি চালিয়েছে তাদের আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা আগামী শনিবার পর্যন্ত ব্যবসায়ী সমিতির ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছি। আমাদের ব্যবসায়ীদের ক্ষতিপুরণ না দিলে আমরা আগামী রবিবার থেকে ধর্মঘটের আহবান করবো।

    পথসভায় অন্যবক্তারাও ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য পরিবহন শ্রমিকদের কাছে অনুরোধ করেন।

    উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভানুগাছ ষ্ট্যান্ড এলাকায় বিজিবি চালকের সাথে এক পরিবহন শ্রমিকের কথা কাটাকাটির জের ধরে কিছু বিজিবি সদস্য ও পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে বিজিবি সদস্যরা শ্রীমঙ্গলের ব্যবসায়ী পথচারীর উপর নির্বিচারে হামলা চালায়। ভাংচুর করে কয়েকশত গাড়ি ও দোকানপাট। এ সময় গুলিবিদ্ধ হন ৪ জন এবং অনেকেই আহত হন।